তুর্কী বিমান সম্পর্কিত তথ্য এবং ঢাকা, বাংলাদেশ বিক্রয় অফিসের ঠিকানা

0
1240

তুর্কী বিমান সংস্থাটি তুরস্কের জাতীয় পতাকাবাহী বিমান সংস্থা যা ১৯৩৩ সালের ২০শে মে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। পরবর্তীতে তুর্কি এয়ারলাইনস স্টার অ্যালায়েন্সের সদস্য পদ লাভ করে। বর্তমানে এটি বেশি সংখ্যক গন্তব্যে যাত্রী পরিবহনের দিক থেকে বিশ্বের চতুর্থ বৃহত্তম বিমান সংস্থা হিসাবে পরিচিত। এটি তুরস্কের জাতীয় ব্যানার বহনকারী বিমান। এটি ইউরোপ, এশিয়া, আফ্রিকা এবং আমেরিকার ৩০২টি আলাদা আলাদা গন্তব্যে যাত্রী পরিবহন করে। তাছাড়া তুর্কি এয়ারলাইন্স ২০১টি কার্গোবাহী বিমান দ্বারা তুরস্কের অভ্যন্তরীণ ৪৭টি গন্তব্য এবং ১২১টি দেশের ২৩২টি গুরুত্বপূর্ণ গন্তব্যে মালামাল পরিবহন করে। পুরো ইউরোপের অভ্যন্তরীণ গন্তব্য গুলোতে ইউরোপ বিমান সংস্থার চেয়ে তুর্কী বিমান সংস্থাটি বেশি সংখ্যক বিমান পরিছালনা করে। ২০১৭ সালে তুর্কী বিমান সংস্থা বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো বিমান পরিচালনা শুরু করে। বর্তমানে তুর্কী বিমানের দ্বারা বাংলাদেশ থেকে যাত্রীরা বিশ্বের যে কোন গন্তব্যে যাতায়াত করতে পারে। তুলনামূলক সস্তা মূল্যে পরিষেবা আবার বিলাশবহুল যাত্রী পরিষেবা, উভয় ক্ষেত্রেই তুর্কী বিমান সংস্থাটি যাত্রীদের নিকট জনপ্রিয়।

তুর্কী বিমান সংস্থাটি প্রচলিত যাত্রী বাজারে তাদের পরিষেবার গুণমানের জন্য “Skytrax” সংস্থা  থেকে অনেক পুরষ্কার পেয়েছে, তাদের মধ্যে অন্যতম একটি হল ইউরোপের সেরা বিমান সংস্থা হিসাবে পুরষ্কার জেতা। তুর্কী বিমান সংস্থাটি ২০১১, ২০১২ এবং ২০১৩ সালে পর পর তিনবার “দক্ষিণ ইউরোপের সেরা বিমান সংস্থা পুরস্কার”, ২০১৪ ও ২০১৫ সালে বিশ্বের সেরা প্রিমিয়াম অর্থনীতি বিভাগের “এয়ারলাইন আসন পুরস্কার” এবং ২০১৬ সালে “ইউরোপের সেরা বিমান পুরস্কার” লাভ করে। ২০১১ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত পর পর ছয় বছর বিভিন্ন পুরস্কারে ভূষিত হওয়ার ফলশ্রুতিতে তুর্কী বিমান সংস্থাটি বিশ্ব শিরোনামের মধ্যমণি হয়ে থাকে। ২০১১ সালের নভেম্বরে, সিওওরোএলডির সংস্থা থাকে তুর্কি এয়ারলাইন্সকে “বিশ্বের ভ্রমণের জন্য ১৬ তম সেরা বিমান সংস্থা” হিসাবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছিল।

বাংলাদেশের বাজারে তুর্কি এয়ারলাইনস টিকিট বিক্রি করে এমন অনেক ট্র্যাভেল এজেন্ট রয়েছে। তবে সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য অনুমোদিত বিক্রয় এজেন্টগুলির একটি এয়ারওয়েজ অফিস বা জু ইনফোটেক (বাংলাদেশে শীর্ষস্থানীয় ট্র্যাভেল এজেন্ট) যারা বিমান শিল্প ও ভ্রমণ সংশ্লিষ্ট প্রযুক্তি গত দিক নিয়ে কাজ করে। সর্বোচ্চ সস্তা মূল্যে বিমানের টিকেট এবং অন্যান্য পরিষেবা পেতে ট্র্যাভেলজু বিডি লিমিটেড এর অফিসের ঠিকানায় যোগাযোগ করুন।

ঢাকাস্থ তুর্কি এয়ারলাইনস বিক্রয় প্রতিনিধির অফিসে যোগাযোগের ঠিকানা

এয়ারওয়েজ অফিস
রোড ৩, হোল্ডিং ৩, সুইট ৩৪,
হ্যাপি আর্কেড শপিং মল,
ধানমণ্ডি,ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ।
মোবাইল নাম্বার: ০১৯৭৮৫৬৯২৯৪– ৯৫-৯৬
অফিসিয়াল ওয়েবসাইটঃ http://www.turkishairticket.com/, http://turkishairlines.com.bd/
সকাল ১০.৩০ টা থেকে রাত ৮.৩০টা পর্যন্ত(সপ্তাহে ৭ দিন খোলা)

এয়ারওয়েজ অফিসের গুগল ম্যাপ লোকেশন –

 

এয়ারওয়েজ অফিসের ফেসবুক পেজ –

ঢাকাস্থ তুর্কি এয়ারলাইনসের কর্পোরেট অফিসে যোগাযোগের ঠিকানা:

এয়ারোমেট সার্ভিসেস লিমিটেড
(জিএসএ) উদয় টাওয়ার, চতুর্থ তলা,
৫৭ গুলশান এভিনিউ, গুলশান -১, ঢাকা, বাংলাদেশ
টেলিফোন নাম্বার: +৮৮ ০২ ৯৮৯ ২৩৯৩
মোবাইল নাম্বার: +৮৮ ০১৬৭ ৮৫৬৯ ২৯৫
ফ্যাক্স নাম্বার: +৮৮ ০২ ৯৮৯ ৯৭৯৪
ইমেইল: info@aeromate.com.bd

তুর্কী এয়ারলাইনস প্রধান অফিসের ঠিকানাঃ

তুর্কি এয়ারলাইনস জেনারেল ম্যানেজমেন্ট বিল্ডিং
আতাতুর্ক বিমানবন্দর,
ইয়েসিলকয় ৩৪১৪৯, ইস্তানবুল, তুরস্ক
টেলিফোন নাম্বার: +৯০ ২১২ ৪৬৩ ৬৩৬৩
ফ্যাক্স নাম্বার: +৯০ ২১২ ৪৬৫ ২১২১

বিমানের যাত্রীদের খাবার সম্পর্কিত তথ্যঃ

প্রতিটি বাণিজ্যিক বিমানের বিনা মূল্যে যাত্রীদের খাবার পরিবেশন করা হয়। এই খাবার বিশেষজ্ঞ এয়ারলাইন ক্যাটারিংদের দ্বারা প্রস্তুত করা হয় এবং সাধারণত বিমানের ভেতর সার্ভিস ট্রলি ব্যবহার করে যাত্রীদের কাছে পৌছানো হয়। কম খরচে বিমান পরিষেবা প্রদানকারী বিমান গুলতে যাত্রীদের কোন ধরনের খাবার সরবরাহ করা হায় না। তবে আপনি চাইলে ফ্লাইট থেকে খাবার কিনতে পারেন।বিমানের ভেতর যাত্রীসেবা সমূহ আরও সুবিধাজনক এবং সুনিশ্চিত করার জন্য যাত্রীদের বিভিন্ন সেবার নাম সম্বলিত প্রাক বই সরবরাহ করা হয়।

ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিমান সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য জানার উপায়:

যাত্রীদের ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিমান সম্পর্কিত তথ্য জানার প্রক্রিয়াকে বলে অনলাইন চেক-ইন। এটি এমন প্রক্রিয়া যেখানে যাত্রীরা ইন্টারনেটের মাধ্যমে তাদের ফ্লাইটে উপস্তিথির তথ্য নিশ্চিত এবং তাদের নিজস্ব বোর্ডিং পাসগুলি মুদ্রণ করতে পারেন।ক্যারিয়ার এবং নির্দিষ্ট ফ্লাইটের ধরনের উপর নির্ভর করে যাত্রীরা তাদের পছন্দের খাবার এবং খাবারের বিকল্প ও মালপত্রের পরিমাণের তথ্য নিশ্চিত করতে পারেন । তাছাড়া যাত্রীরা উক্ত পক্রিয়ার মাধ্যমে তাদের পছন্দের আসন পূর্বেই নির্বাচন করতে পারে।
#অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট এর ক্ষেত্রে প্রস্থানের নির্ধারিত সময় থেকে  ১ কিংবা ১ঃ৩০ ঘন্টা আগে চেক-ইন করতে হয়।
#যাত্রীরা তাদের ই-বোর্ডিং পাস চেক ইন এর জন্য মোবাইল ওয়েবসাইট বা মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করতে পারেন।
# যে সকল যাত্রী অনলাইনে চেক ইন করবে তাদের নিজ উদ্যোগে তাদের বোর্ডিং পাস মুদ্রণ এবং তাদের বিমানবন্দর থেকে বোর্ডিং পাসের জন্য একটি ভাউচার বাধ্যতামূলক গ্রহন করতে হবে

রিজার্ভেশন সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্যঃ

ফ্লাইটে উঠার আগে অবশ্যই আপনার বিমানের টিকিটটি পরীক্ষা করুন এবং ভালভাবে নিশ্চিত হন। আপনি যদি আপনার রিজার্ভেশন সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য দেখতে চান তাহলে রিজার্ভেশন থেকে, আপনার রিজার্ভেশন রেফারেন্স বা পিএনআর নাম্বার টি এবং আপনার নামের শেষ অংশটি লিখুন।উক্ত তথ্য গুলো লিখার পর রিজার্ভেশন থেকে আপনি আপনার সকল তথ্য জমা দেখতে পারবেন।
আপনি ফ্লাইট পরিবর্তন করতে চাইলে আপনার বুকিং রেফারেন্স নাম্বার এবং আপনার নামের শেষ অংশটি লিখুন। এরপর আপনার বুকমার্ক এ আপনার নামের অংশটুকু একইরকম কিনা সেটা নিশ্চিত করুন।

তুর্কি এয়ারলাইন্সের ঢাকা অফিসের ঠিকানা বা ফোন নাম্বারে সংক্রান্ত যে কোনও সমস্যা / অভিযোগ নীচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।


Warning: A non-numeric value encountered in /home/bimatlrw/travelnews.com.bd/wp-content/themes/Newspaper/includes/wp_booster/td_block.php on line 1008

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here