থাই লায়ন সম্পর্কিত তথ্য এবং ঢাকা, বাংলাদেশ বিক্রয় অফিসের ঠিকান

0
980

থাই লায়ন সম্পর্কিত তথ্য এবং বিক্রয় অফিসের ঠিকানাথাই লায়ন এয়ারটি এমন একটি বিমান সংস্থা যারা যাত্রীদের উন্নত পণ্য পরিবহণ এবং অনন্যা  পরিষেবা প্রদান করে। তারা থাইল্যান্ডে প্রথম বিমান হিসাবে নতুন ব্র্যান্ডের এয়ার ক্রাফ্ট, বোয়িং ৭৩৭-৯০০ইর, বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এবং এ ৩৩০-৩০০ ফ্লাইট দারা সরাসরি প্লান্ট থেকে ব্যাংকক পর্যন্ত যাত্রীদের উড্ডয়ন সেবা পরিবেশন করে। থাই লায়ন মেন্টারী কোঃলিমিটেড, থাই লায়ন এয়ারের মতোই একটি বাণিজ্যক সংস্থা।থাই লায়ন থাইল্যান্ডের বিমান পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থা গুলোর মধ্যে সবথেকে কম দামে বিমান পরিষেবা প্রদান করে। লায়ন এয়ার, উইংস এয়ার, বটিক এয়ার, লায়ন বিজজেট এবং মালিন্দো এয়ার সহ লায়ন এয়ার ইউনিটের সহযোগী সংস্থা হিসাবে সাথে কাজ করে।

বাংলাদেশের বাজারে থাই লায়নের টিকিট বিক্রি করে অনেক ট্র্যাভেল এজেন্ট রয়েছে। তবে সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য অনুমোদিত বিক্রয় এজেন্টগুলির একটি এয়ারওয়েজ অফিস বা জু ইনফোটেক (বাংলাদেশে শীর্ষস্থানীয় ট্র্যাভেল এজেন্ট) যারা বিমান শিল্প ও ভ্রমণ সংশ্লিষ্ট প্রযুক্তি গত দিক নিয়ে কাজ করে। সর্বোচ্চ সস্তা মূল্যে বিমানের টিকেট এবং অন্যান্য পরিষেবা পেতে যোগাযোগ করুন।

ঢাকাস্থ থাই লায়ন এয়ারলাইন্স এর বিক্রয় প্রতিনিধির অফিসে যোগাযোগের ঠিকানা

এয়ারওয়েজ অফিস
রোড ৩, হোল্ডিং ৩, সুইট ৩৪,
হ্যাপি আর্কেড শপিং মল,
ধানমণ্ডি,ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ।
মোবাইল নাম্বার: ০১৯৭৮৫৬৯২৯৪– ৯৫-৯৬
অফিসিয়াল ওয়েবসাইটঃ http://thailionairticket.com/
সকাল ১০.৩০ টা থেকে রাত ৮.৩০টা পর্যন্ত(সপ্তাহে ৭ দিন খোলা)

এয়ারওয়েজ অফিসের গুগল ম্যাপ লোকেশন –

 

এয়ারওয়েজ অফিসের ফেসবুক পেজ –

গন্তব বিষয়ক তথ্যঃ

থাইল্যান্ড লায়ন এয়ার ১০​​ই ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখে লায়ন এয়ার এবং তাদের সহায়ক প্রতিষ্ঠান মালিন্দো এয়ারের সাথে উভয় মিলিত হয়ে একটি চুক্তি সম্পন্ন করে এবং উভয় প্রতিষ্ঠানকে কুয়ালালামপুর থেকে বিশ্বের সকল দেশ এবং তাদের অভ্যন্তরীণ সকল বিমান বন্দর গুলুতে ফ্লাইট সরবরাহ করার অনুমুতি দেয়। বর্তমানে থাই লায়ন এয়ারটি ব্যাংকক, চিয়াং মাই, চিয়াং রায়, হাট ইয়া, খোন কেন, ক্রবি, নাখন সি থমরমত, পাতায়, ফিতসানুলক, ফুকেত, সুরত থানি, ট্রাং, উবন রচথানী, উডন থানি, চংকশা, চ্যাংঝো, চেংদু, চংকিং , গুয়াংঝু, হানঝো, হেফাই, জিনান, নানচং, নানজিং, নিংবো, সাংহাই, শেনঝেন, উহান, জিয়াঝো, কলম্বো, ঢাকা, হানো, জাকার্তা, দেপ্পসর-বালি, কাঠমান্ডু, মুম্বাই, সিঙ্গাপুর, তাইপেই, ইয়াংন, নারিতা , নাগোয়ায় ফ্লাইট সরবরাহ করার মাধ্যমে যাত্রীদের বিমান পরিষেবা প্রদান করে।

সেবা, পর্যালোচনা এবং পুরষ্কার বিষয়ক তথ্যঃ

থাইল্যান্ডের বিভিন্ন শহর থেকে অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক আকাশ সীমায় নির্ধারিত পথে যাত্রীদের বিমান পরিষেবা প্রদান করার লক্ষে ব্যাংককের ডন মুয়্যাং আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ফ্লাইটগুলি পরিচালিত হয়। ভ্রমণকারীরা আরাম এবং বিভিন্ন বিষয় সমুহের মান সুনিশ্চিত ভাবে নিশ্চিত করা হয়। সিলিং লাইটে নীল মুড আলোর সংযোজন হয়। বিমান যাত্রার সময় বিমানের ভেতর অবস্থিত যাত্রীদের আকাশ পথে ক্লান্তিকর যাত্রাকে আর আনন্দময় করার জন্য বিমানের সিলিং লাইটে নীল মুড আলো সংযোজন করে বিমানের অভ্যন্তরে বাহির আকাশের অবহ তৈরি করা হয়। প্রিমিয়াম ইকোনমি ক্লাসের যাত্রীদের জন্য ৪২ “এবং ইকোনমি ক্লাসের যাত্রীদের জন্য ৩২” এর চামড়ায় মোড়ান রুলিং আসন থাকে। তাছাড়া প্রতিটি আসনের সামনের টিভিতে সর্বশ্নেষ মুক্তিপ্রাপ্ত হলিউড ব্লকবাস্টার, টিভি প্রোগ্রাম এবং গেমস যাত্রীদের জন্য প্রদশ্রিত হয়।

ইকোনমি ক্লাসের যাত্রীদের বিভিন্ন তথ্যঃ

১) যাত্রীদের মানসম্পন্ন খাবার এবং অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় প্রদান।
২) এ ৩৩০ বিমানটি ছাড়া প্রতিটি বিমানের অভ্যন্তরে যাত্রীদের জন্য বিনোদন ব্যবস্থা।
৩)আসন মাপ,
সকল বিমানে ২9 ইঞ্চি শুধুমাত্র ৭৩৭-৮০০-এ ৩৩০ বিমান গুলিতে মধ্যে 31 এবং 32 ইঞ্চি আসন থাকে। তবে পছন্দ মতো আসন নির্বাচনের সময় কিছু মূল্য পরিশোধ করতে হয়।
৪) অভ্যন্তরীণ পথের যাত্রীরা তাদের সাথে সরবচ্চ ১৫ কেজি এবং আন্তর্জাতিক পথের যাত্রীরে সরব্যচ্ছ ২০ কেজি পর্যন্ত বিনা মূল্যে মালপত্র পরিবহন করতে পারেন।

বিশেষ যাত্রীদের বিভিন্ন তথ্যঃ

১)প্রশংসাসূচক খাবার, নাস্তা এবং মদ্যপ পানীয়ের বাবস্থা
২)এ৩৩০ বিমানে 60 ইঞ্চি এবং অন্যান্য বিমানে 42 ইঞ্চি মাপের আসন।
৩)চাহিদা অনুয়াযী বিনোদন,
৪) বিনামূল্যে যাত্রীদের মালপত্র পরিবহন সেবা।

থাই লায়ন বিমানের যাত্রীদের খাবার সম্পর্কিত তথ্যঃ

প্রতিটি বাণিজ্যিক বিমানের বিনা মূল্যে যাত্রীদের খাবার পরিবেশন করা হয়। এই খাবার বিশেষজ্ঞ এয়ারলাইন ক্যাটারিংদের দ্বারা প্রস্তুত করা হয় এবং সাধারণত বিমানের ভেতর সার্ভিস ট্রলি ব্যবহার করে যাত্রীদের কাছে পৌছানো হয়। কম খরচে বিমান পরিষেবা প্রদানকারী বিমান গুলতে যাত্রীদের কোন ধরনের খাবার সরবরাহ করা হায় না। তবে আপনি চাইলে ফ্লাইট থেকে খাবার কিনতে পারেন।বিমানের ভেতর যাত্রীসেবা সমূহ আরও সুবিধাজনক এবং সুনিশ্চিত করার জন্য যাত্রীদের বিভিন্ন সেবার নাম সম্বলিত প্রাক বই সরবরাহ করা হয়।

ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিমান সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য জানার উপায়:

যাত্রীদের ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিমান সম্পর্কিত তথ্য জানার প্রক্রিয়াকে বলে অনলাইন চেক-ইন। এটি এমন প্রক্রিয়া যেখানে যাত্রীরা ইন্টারনেটের মাধ্যমে তাদের ফ্লাইটে উপস্তিথির তথ্য নিশ্চিত এবং তাদের নিজস্ব বোর্ডিং পাসগুলি মুদ্রণ করতে পারেন।ক্যারিয়ার এবং নির্দিষ্ট ফ্লাইটের ধরনের উপর নির্ভর করে যাত্রীরা তাদের পছন্দের খাবার এবং খাবারের বিকল্প ও মালপত্রের পরিমাণের তথ্য নিশ্চিত করতে পারেন । তাছাড়া যাত্রীরা উক্ত পক্রিয়ার মাধ্যমে তাদের পছন্দের আসন পূর্বেই নির্বাচন করতে পারে।
#অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট এর ক্ষেত্রে প্রস্থানের নির্ধারিত সময় থেকে  ১ কিংবা ১ঃ৩০ ঘন্টা আগে চেক-ইন করতে হয়।
#যাত্রীরা তাদের ই-বোর্ডিং পাস চেক ইন এর জন্য মোবাইল ওয়েবসাইট বা মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করতে পারেন।
# যে সকল যাত্রী অনলাইনে চেক ইন করবে তাদের নিজ উদ্যোগে তাদের বোর্ডিং পাস মুদ্রণ এবং তাদের বিমানবন্দর থেকে বোর্ডিং পাসের জন্য একটি ভাউচার বাধ্যতামূলক গ্রহন করতে হবে

রিজার্ভেশন সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্যঃ

ফ্লাইটে উঠার আগে অবশ্যই আপনার বিমানের টিকিটটি পরীক্ষা করুন এবং ভালভাবে নিশ্চিত হন। আপনি যদি আপনার রিজার্ভেশন সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য দেখতে চান তাহলে রিজার্ভেশন থেকে, আপনার রিজার্ভেশন রেফারেন্স বা পিএনআর নাম্বার টি এবং আপনার নামের শেষ অংশটি লিখুন।উক্ত তথ্য গুলো লিখার পর রিজার্ভেশন থেকে আপনি আপনার সকল তথ্য জমা দেখতে পারবেন।
আপনি ফ্লাইট পরিবর্তন করতে চাইলে আপনার বুকিং রেফারেন্স নাম্বার এবং আপনার নামের শেষ অংশটি লিখুন। এরপর আপনার বুকমার্ক এ আপনার নামের অংশটুকু একইরকম কিনা সেটা নিশ্চিত করুন।

থাই লায়ন এয়ারলাইন্সের ঢাকা অফিসের ঠিকানা বা ফোন নাম্বারে সংক্রান্ত যে কোনও সমস্যা / অভিযোগ নীচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here