ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাফারি পার্ক

656

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপরূপ লীলাভূমি কক্সবাজার জেলা। পাহাড়, পর্বত, ঝারনাসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক বৈচিত্র্য দিয়ে ঘেরা এই জেলাটি। এই জেলার চকরিয়া উপজেলাতেই ডুলাহাজারা সাফারি পার্ক (যা ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাফারি পার্ক নামেও পরিচিত) অবস্থিত। এটি ১৯৮০-৮১ সালে হরিণ প্রজনন কেন্দ্র হিসেবে চালু হয়েছিল। বর্তমানে এটি জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণের জন্য নানা জীবজন্তুর নির্ভয় আবাসস্থল। ডুলাহাজারা সাফারি পার্কটি কক্সবাজার জেলা সদর থেকে ৪৮ কিলোমিটার উত্তরে এবং চকরিয়া থানা থেকে ১০ কিলোমিটার দক্ষিণে, কক্সবাজার জেলা সদরের দক্ষিণ বন বিভাগের ফাঁসিয়াখালি রেঞ্জের ডুলাহাজারা ব্লকে অবস্থিত।

সাফারী পার্ক হলো সরকার ঘোষিত এলাকা যেখানে বণ্যপ্রানীদেরকে তাদের প্রাকৃতিক পরিবেশে প্রতিপালন করা হয়।এর মধ্যে দেশী-বিদেশী বন্য প্রাণীর বংশবৃদ্ধি ও অবাধ বিচরণের সুযোগ থাকে এবং যাতে পর্যটকগণ পায়ে হেঁটে বা যানবাহনে ভ্রমণ করে টিকিটের বিনিময়ে শিক্ষা,গবেষণা ও চিত্তবিনোদনের সুযোগ থাকে।সাফারী পার্ক চিড়িয়াখানা থেকে ভিন্নতর।চিড়িয়াখানায় জীব-জন্তু আবদ্ধ অবস্থায় থাকে আর সাফারী পার্কে মুক্ত অবস্থায় বিচরণ করে।

আটটি ব্লকে প্রকৃতির সঙ্গে কৃত্রিমতার মিশ্রণে গড়ে তোলা এ পার্কে মুক্ত পরিবেশে হাঁটাচলা করা যায়, পরিবারের সদস্যদের নিয়ে অনায়াসে ঘুরে বেড়ানো যায়। এখানে আছে সিংহ, রয়েল বেঙ্গল টাইগার, নানা প্রজাতির হরিণ, হনুমান, ভাল্লুক, ময়ূর, বন্য শূকর, নানা প্রজাতির পাখি, সাপ, কুমির, জলহস্তী, বানর, হরিণ, হাতি, বনগরু, বন মোরগ, মেছো বিড়াল, চিতা বিড়াল, বাঘডাশ, গন্ধগোকুল ইত্যাদি। এখানে স্থাপিত একাধিক পর্যবেক্ষণ টাওয়ারের মাধ্যমে নয়নাভিরাম সৌন্দর্য ও পশুপাখিদের বিচরণ নিরাপদে পর্যবেক্ষণ করা যায়। নানা প্রজাতির বড় বড় বৃক্ষ, আর দুর্লভ ও ঔষধি লতাগুল্ম রয়েছে এ পার্কে। প্রায় ৯০০ হেক্টর জমির ওপর প্রতিষ্ঠিত দেশের একমাত্র সাফারি পার্ক এটি। কিছু পশুপাখি খাঁচায় বন্দী হলেও এ পার্কে অবস্থানরত অধিকাংশ পশুপাখিদের বিচরণের জন্য প্রচুর উন্মুক্ত জায়গা রয়েছে। পর্যটকদের জন্য রয়েছে বিশ্রামাগার ও ডরমেটরি। ।

যেভাবে যাবেনঃ-

বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কটি কক্সবাজার জেলা সদর থেকে ৪৮ কিলোমিটার উত্তরে এবং চকরিয়া থানা থেকে ১০ কিলোমিটার দক্ষিণে,কক্সবাজার জেলা সদরের দক্ষিণ বন বিভাগের ফাসিয়াখালি রেঞ্জের ডুলাহাজারা ব্লকে অবস্থিত।দূরপাল্লার যে কোন বাস, সৌদিয়া পরিবহন, এস.আলম পরিবহন, সেন্টমাটিন পরিবহন, শ্যামলী পরিবহন, হানিফ পরিবহন,মর্ডাণ পরিবহনে করে কক্সবাজার যেতে হবে। আপনি চাইলে চট্টগ্রাম থেকেও যেতে পারেন। কক্সবাজার শহর থেকে সিএনজি চালিত অটোরিক্সা কিংবা মাইক্রোবাস অথবা পাবলিক বাসে করে যেতে পারেন সাফারী পার্কে।