দুবাই টুরিস্ট ভিসা

1884

দুবাই টুরিস্ট ভিসা

 

দুবাই আমাদের অনেকের কাছেই স্বপ্নের একটি গন্তব্য। যারা দুবাই সম্পর্কে কিছুটা হলেও জানেন তারা তো সুযোগ পেলে দুবাই ভ্রমণের জন্য এক বাক্যে রাজী হয়ে যাবেন! দুবাই এর জাঁকজমক ও জৌলুসপূর্ণ জীবন যাপন সবাইকে টানে। তবে অনেকেই আছেন যারা এ সম্পর্কে খুব বেশী জানেন না। তাদের উদ্দেশেই আমাদের আজকের ব্লগ।দুবাই টুরিস্ট ভিসা

দুবাই সংযুক্ত আরব আমিরাতের একটি প্রধান শহর। এটি সংযুক্ত আরব আমিরাতের একটি প্রধান আমিরাত বা প্রদেশ। এটি আরব আমিরাতের সাতটি প্রদেশের মধ্যে একটি প্রদেশ। এটি পারস্য উপসাগরের দক্ষিণ তীরে আরব উপদ্বীপে অবস্থিত। ১৮৩৩ সাল থেকে দুবাই শাসন করে আসছে আল মাকতুম পারিবার। দুবাইয়ের বর্তমান শাসকের নাম মুহাম্মদ বিন রশীদ আল মাকতুম। ৪,১১৪ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের এই চমৎকার প্রদেশের জনসংখ্যা ৩.১৩ মিলিয়ন। দুবাইয়ের প্রধান রাজস্ব আয় হচ্ছে পর্যটন, রিয়েল এস্টেট এবং অর্থনৈতিক সেবা।

নীচে আমরা দুবাইয়ের প্রধান আকর্ষণীয় বিষয়গুলো নিয়ে সংক্ষেপে আলোচনা করেছি।

দুবাইকে বলা হয়ে থাকে স্কাই-স্ক্র্যাপার বা উঁচু ভবনের শহর। এখানকার সুউচ্চ অট্টালিকাগুলো সত্যি দেখার মত। বিখ্যাত বুরজ আল খলিফার নাম অনেকেই শুনে থাকবেন ইতিমধ্যে, যা কিনা এখন পর্যন্ত মানুষ নির্মিত সব থেকে উঁচু স্থাপনা। তবে শুধু বুরজ খলিফা নয়, সমগ্র দুবাই মিলে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে পৃথিবীর অন্যতম সেরা কিছু অট্টালিকা। এর মধ্যে আছে মেরিনা ১০১, প্রিন্সেস টাওয়ার, ২৩ মেরিনা, এলিট রেসিডেন্স, আলমাস টাওয়ার এবং আরও অনেক। এগুলো শুধু উচুই না। এসব অট্টালিকা গুলোর ভিতরেও অনেক জাঁকজমক পূর্ণ। এর সাথে আরো সংযুক্ত হতে যাচ্ছে পৃথিবীর সর্ব প্রথম ঘূর্ণায়মান বা রোটেটিং টাওয়ার। দুবাই বেড়াতে গেলে এসব আকর্ষণীয় সুউচ্চ ভবনগুলো আপনাকে মুগ্ধ করবেই।

 

 চমৎকার সব সমুদ্র সৈকত

দুবাইয়ের দারুন সমুদ্র সৈকত গুলোতে আপনাকে মনকে মুগ্ধ করবেই। দুবাই শহরটি পারস্য উপসাগরের ঠিক পাড়েই অবস্থিত। তাই সৈকতের কোন কমতি পাবেন না। এখানকার চমৎকার সূর্যালোক ও নিরাপত্তাবেষ্টিত সমুদ্র সৈকত পশ্চিমা নাগরিকদের কাছে অনেক জনপ্রিয়। এখানকার জনপ্রিয় সৈকত গুলোর মধ্যে আছে জুমেইরাহ সৈকত, মেরিনা সৈকত, আল মামজার সৈকত, আজুর সৈকত এবং আরও অনেক।

 

দ্য পাম আইল্যান্ড

পর্যটনের জন্য যে সব জায়গা আমরা বেছে নেই, তার সবগুলোতেই কম বেশী দ্বিপ থাকেই। কিন্তু মনুষ্য নির্মিত আর্টিফিশিয়াল দ্বিপ কোথায় পাবেন? দুবাই আপনার এই তৃষ্ণাও মিটাতে পারবে। ২০০১ থেকে ২০০৬ মাত্র এই ৫ বছরের মধ্যে পৃথিবীর বৃহত্তম এই মানব সৃষ্ট দ্বিপপুঞ্জ নির্মাণ করেছে দুবাই সরকার। মুল উদ্দেশ্য ছিল আরও বেশী পর্যটকদের আকৃষ্ট করা। সে উদ্দেশে তারা সফল। এখানে প্রতিবছর অনেক পর্যটকদের সমাগম হয়ে থাকে। তাঁদের সেবা দেয়ার জন্যে এখানে রয়েছে, ৫ তারকা বিশিষ্ট হোটেল, অনেক গুলো সমুদ্র সৈকত এবং আরও আধুনিক সব স্থাপনা।

শপিং এর স্বর্গ

দুবাইকে বলা হয়ে থাকে দ্য শপার্স প্যারাডাইস। কেনা কাটা করতে যারা ভালবাসেন তাঁদের জন্য দুবাই এক অসাধারন জায়গা। গুচি, নাইকি থেকে শুরু করে অ্যাপল, র‍্যালফ লরেন, ওমেগা, মেবিলাইন, শ্যানেল এমন কোন আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ড নেই যাদের শোরুম দুবাইয়ে পাবেন না। শোরুম থেকে কেনার কারনে একদিকে আপনি যেমন সঠিক দামে আসল প্রোডাক্ট পাচ্ছেন, তেমন ভাবে কোম্পানির এক্সক্লুসিভ বিক্রয়ত্তর সেবার স্বাদও গ্রহন করতে পারবেন। এছাড়া দুবাই এয়ারপোর্টের স্পেশাল ডিউটি ফ্রি শপিং তো রয়েছেই।

 বুরজ খলিফা

দুবাইয়ের অন্যান্য জৌলুসের কথা বাদ দিলেও বুরজ খলিফার কথা আপনাকে ভাবতেই হবে। পৃথিবীর সর্বচ্চ এই স্থাপনা যে শুধুমাত্র এখানেই পাবেন! সর্বচ্চ স্থাপনা হবার পাশাপাশি বুরজ খলিফা একটি ৭ তারকা বিশিষ্ট হোটেলও বটে। ৫ তারকা বিশিষ্ট হোটেল অনেক পাবেন, কিন্তু সত্যিকার ৭ তারকা বিশিষ্ট হোটেল পৃথিবীতে আছে হাতে গোনা, মাত্র ৫ টি। এর মধ্যে দুটি দুবাই এ, যার একটি এই বুরজ খলিফা। জুমেইরা সৈকত থেকে ২৮০ কিলোমিটার দূরে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় মনুষ্য নির্মিত দ্বিপের উপর বুরজ আল খলিফা অবস্থিত। হোটেলের আয়োজনের মধ্যে অন্যান্য আকর্ষণের পাশাপাশি রয়েছে অতিথিদের জন্য রোলস রয়েস নামক বিলাস বহুল গাড়ির ব্যাবস্থা। এছাড়া যাদের নিজস্ব হেলিকপ্টার রয়েছে তাঁদের জন্য রয়েছে তাঁদের জন্য তো হেলিপ্যাড তো থাকছেই।

দুবাই টুরিস্ট ভিসার জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টসঃ

 

  • যথাক্রমে দুবাই ভিসা ফর্ম পূরণ করা।
  • আমিরাত এয়ারলাইন্সে নিশ্চিত রিটার্ন / পরবর্তী টিকিটের ফটোকপি।
  • (ছয়) মাসের বৈধ পাসপোর্ট।
  • এমআরপি পাসপোর্ট তথ্য পৃষ্ঠা -৩ অনুলিপি + ভিসা পৃষ্ঠাগুলি অনুলিপি 1 সেট (পেনড্রাইভ দ্বারা সরবরাহিত / সিডি জেপিইগ ফর্ম্যাট অবশ্যই রঙ অনুলিপি হতে হবে)।
  • ২ রঙিন ফটোগ্রাফ (43 mm x55 mm ) (সাম্প্রতিক 3 মাস) + স্ক্যান / সফট কপি (জেপিইজি ফর্ম্যাট) পেন ড্রাইভ / সিডি দ্বারা সরবরাহিত।
  • ভিজিটিং কার্ড (সফট + হার্ড কপি)।
  • কোম্পানির লেটার হেড এবং ট্রেড লাইসেন্সে নোট ফরওয়ার্ডিং (নোটারি সিল সহ) + স্ক্যান / সফট কপি (জেপিইজি ফর্ম্যাট) / চাকরিধারীদের জন্য এনওসি সরবরাহ করুন। পেন ড্রাইভ / সিডি সরবরাহ করেছেন।
  • দুটি তথ্যসূত্র যোগাযোগের তথ্য (বাংলাদেশী)
  • ভিসা ফি নন ফেরতযোগ্য 8,900 / – 30 দিনের জন্য ভিসা এবং দেখুন

নন ফেরতযোগ্য 4,000 / – 96 ঘন্টা ট্রানজিট ভিসার জন্য (3 য় দেশ বৈধ   ভিসা বাধ্যতামূলক)

  • কমপক্ষে ৪ টা দেশ ভ্রমন থাকতে হবে।

আমাদের ভিসা প্রসেসিং ফি  ১৮০০টকা (অর্থ প্রদানের জন্য এখানে ক্লিক করুন)

  • কোম্পানির চিঠি হেড / ট্র্যাভেল এজেন্ট উত্তরোত্তর প্রধান:

ক) যে কোনও নির্বাসন / ওভারস্টে চার্জের জন্য

খ) যদি আমিরাতের টিকিট ব্যবহার না করা হয় তবে বিমান সংস্থাগুলি ট্র্যাভেল এজেন্সি অ্যাকাউন্ট থেকে টিকিটের মূল্য ডেবিট করবে।

ভিসা আবেদন প্রোসেস সংক্রান্ত:

যোগাযোগ করুন আমাদের ভিসা সহায়ক ব্যবাস্হাপক এর সাথে

মোবাইল:(+88) 01978569293)

ওয়েবসাইট:  www.airwaysoffice.com
ই-মেইল: myvisaapplicationinfo@gmail.com

 

যেকোনো দেশের এয়ার টিকেট, হোটেল বুকিং, হেলিকপ্টার সার্ভিস, টুরিস্ট ভিসা প্রসেসিং এবং প্যাকেজ ট্যুর করে থাকি। বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করুন নিচের ঠিকানায়।

zooFamily (community of aviation & travel)

রোড ৩, হোল্ডিং ৩, সুইট ৩৪,হ্যাপি আর্কদিয়া শপিং মল,ধানমণ্ডি,ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ। মোবাইল নাম্বার: ০১৭৬৮২৩২৩১১