মায়ানমার টুরিস্ট ভিসা

664

মায়ানমার টুরিস্ট ভিসা

 

মায়ানমার, অপরুপ  সৌন্দর্য্যে ভরপুর একটি দেশ। আমাদের দেশ থেকে বর্তমানে অনেক পর্যটকই মায়ানমারে যাচ্ছে। যেতে পারেন আপনিও, আর দেখে আসতে পারেন সুন্দর এই দেশটি। যারা যেতে চাইছেন তাদের জন্যি আজ জানিয়ে দিচ্ছি মনোরম এই প্রতিবেশী দেশটিতে বেড়াতে যেতে ভিসা করার নিয়ম।মায়ানমার টুরিস্ট ভিসা

মায়ানমার ভ্রমণকারীদের জন্য বিভিন্ন মেয়াদে ভিসা দিয়ে থাকে। অনলাইনে ভিসা ফর্ম পূরণ করে এবং টাকা জমা দিয়ে মায়ানমারের ভিসা পাওয়া যায়। অনলাইনে ভিসার জন্য আবেদন করার তিন কার্যদিবসের মধ্যে ভিসা প্রসেসিং এর কাজ শেষ হয়ে যায় এবং ভিসার জন্য অনুমোদনপত্র ই-মেইলের মাধ্যমে আবেদনকারীর কাছে পাঠানো হয়।

স্থানীয় এজেন্সিতে ভিসা ইস্যু করার সময় প্রয়োজন:

 

  • বৈধ পাসপোর্ট (পাসপোর্টের মেয়াদ ৬ মাসের বেশি থাকতে হবে)
    • ২ কপি ছবি। ছবির সাইজ ৪×৬ সে.মি. হতে হবে এবং ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড নীল অথবা সাদা রঙের হতে হবে।
    • ভিসার অনুমোদনপত্র
    • ভিসা স্ট্যাম্পের নগদ ডলার
    • মায়ানমারের বিমানের টিকেট ও হোটেল বুকিং-এর তথ্য।
    • চাকরিজীবী হলে অফিসের অনাপত্তিপত্র
    • ব্যবসায়ী হলে সঙ্গে নেবেন ট্রেড লাইসেন্স
    • ছয় মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট।

ভিসার জন্য www.myanmar-visa.org ওয়েবসাইট থেকে সব সঠিক তথ্য দিয়ে আবেদন করতে পারেন।

আবেদনপত্র সঠিক ভাবে পূরণ করার পরে, ভিসার জন্য অনলাইনে নির্ধারিত চার্জ ক্রেডিট কার্ড, ভিসা অথবা মাস্টার কার্ডের মাধ্যমে চার্জ পরিশোধ করতে হবে। ভ্রমণের জন্য মায়ানমারে ২৮ দিন থাকার ভিসা ফি ৫০ ডলার।

যদি কোনো কারণে ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর প্রয়োজন হয়, তবে ভিসার মেয়াদ আরও দুই সপ্তাহ বাড়ানো যায়। এর জন্য নির্ধারিত ‘এক্সটেনশন ফর্ম’ এ আবেদন করতে হয়।

আমাদের ভিসা প্রসেসিং ফি  ১৮০০টকা (অর্থ প্রদানের জন্য এখানে ক্লিক করুন)

যেকোনো দেশের এয়ার টিকেট, হোটেল বুকিং, হেলিকপ্টার সার্ভিস, টুরিস্ট ভিসা প্রসেসিং এবং প্যাকেজ ট্যুর করে থাকি। বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করুন নিচের ঠিকানায়।

zooFamily (community of aviation & travel)

রোড ৩, হোল্ডিং ৩, সুইট ৩৪,হ্যাপি আর্কদিয়া শপিং মল,ধানমণ্ডি,ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ। মোবাইল নাম্বার: ০১৭৬৮২৩২৩১১