বলধা গার্ডেন| ট্র্যাভেল নিউজ বাংলাদেশ

676

বলধা গার্ডেন ঢাকার ওয়ারী এলাকায় অবস্থিত একটি উদ্ভিদ উদ্যান। এই উদ্যানে প্রচুর দূর্লভ প্রজাতির উদ্ভিদ রয়েছে। তদানীন্তন ঢাকা জেলা, বর্তমান গাজীপুর জেলার বলধার জমিদার নরেন্দ্রনারায়ণ রায় চৌধুরী ১৯০৯ খ্রিস্টাব্দে বলধা গার্ডেনের সূচনা করেন। তিনি দুটি উদ্যান তৈরি করেন। প্রথম উদ্যানটির নাম রাখেন “সাইকী”। পরবর্তিতে তৈরি করা হয় দ্বিতীয় উদ্যান “সিবলী”। নরেন্দ্রনারায়ণ রায় চৌধুরীর মৃত্যুর পর কোনো এক সময়ে এ দুটি উদ্যানকে সম্মিলিতভাবে বলধা গার্ডেন নামে আখ্যায়িত করা হতে থাকে। ৩.৩৮ একর জায়গার উপর এই উদ্যান নির্মাণ করা হয়েছে। নরেন্দ্রনারায়ণ এখানে একটি পারিবারিক জাদুঘরও প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

জমিদার নরেন্দ্রনারায়ন রায়চৌধুরী শুরুতে দেশের বিরল লতাপাতা, ঝোপজাতীয় ঘরোয়া উদ্ভিদ, অর্কিড ও ক্যাক্টাস রোপন করেন। এই অংশের নাম দেন ‘সাইকি’। যার অর্থ ‘আত্মা’। ১৯৩৬ সালে এই অংশের  গাছপালাগুলোর বংশবিস্তারের জন্য আরও ৩.৮ একর জমি ব্যবহার করেন তিনি। এ অংশের নাম দেন ‘সিবলি’। যার অর্থ ‘প্রকৃতির দেবী’।

বর্তমানে এই বাগানে দেশি-বিদেশি মিলিয়ে প্রায় ৮শ প্রজাতির ১৮ হাজার উদ্ভিদ সংরক্ষণ করা আছে। এছাড়াও বাগানে রয়েছে দুর্লভ পামপ্রজাতির উদ্ভিদের এক বিশাল সংগ্রহ। রয়েছে হরেক রকমের লতা, গুল্ম, ঔষধি ও সৌন্দর্যবর্ধক গাছ। বলধা বাগানে ভাড়ায় চিত্রায়ন ও সাইকি অংশে শিক্ষার্থীদের গবেষণার ব্যবস্থা আছে। ছাত্রছাত্রীরা আগে থেকে আবেদন করলে বিনামূল্যে বাগান দেখার সুযোগ করে দেওয়া হয়।

সিবিলি অংশের বৃহৎ সূর্যঘড়ি (sun-dial) রৌদ্রোজ্জতল দিনে সঠিক সময় নির্দেশ করে এবং এখনও সকলের, বিশেষত কিশোরদের জন্য অত্যন্ত আকর্ষণীয় একটি প্রদর্শনদ্রব্য হয়ে আছে। বাগানের ফুলের শোভা দেখার জন্য আছে ‘আনন্দভবন’ (Joy House) নামের একটি বিশ্রামঘর তথা অ্যাম্ফিথিয়েটার। এখানে অনেক বিখ্যাত ব্যক্তি এসেছেন এবং রবীন্দ্রনাথও এখানে বসেই ‘ক্যামেলিয়া’ কবিতাটি রচনা করেছিলেন। সাইকি অঞ্চলের পদ্মপুকুরে আছে আমাদের জাতীয় ফুল সাদা শাপলাসহ (Nymphaea noucheli) নানা আকর্ষণীয় জলজ প্রজাতি। সিবিলি অংশের গোলাপ বাগান নানাজাতের গোলাপের সমৃদ্ধ সংগ্রহের জন্য গোটা উপমহাদেশে বিখ্যাত। দুটি গ্রীনহাউসের একটিতে আছে বহু প্রজাতির অর্কিড, কচুজাতীয় ঔষধি ও ছায়াপছন্দ গাছপালা। নিসর্গী ও দর্শকদের জন্য এটি একটি অত্যন্ত আকর্ষণীয় স্থান এবং উপমহাদেশের এতদঞ্চলের ফুলের শোভা  উপভোগের অন্যতম প্রখ্যাত ও ঐতিহাসিক উদ্যান।

কীভাবে যাবেন:

রাজধানী সুপার মার্কেট পেরিয়ে হাটখোলার রাস্তা ধরে পাঁচ মিনিট হাঁটলেই নবাব স্ট্রিট, পুরান ঢাকার ওয়ারী। এখানেই বলধা বাগান বা বলধা গার্ডেন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here