কানাডার ভিসা পেতে যা করতে হবে আপনাকে

1164

কানাডার ভিসা পেতে যা করতে হবে আপনাকে

স্বপ্নের দেশ কানাডা ভ্রমণের জন্য ভিজিট ভিসা প্রসেসিং এখন খুব সহজেই,স্বল্প সময়ে এবং কম খরচে। তাই সপরিবারে সহজেই এখন ঘুরে আসতে পারেন কানাডা থেকে। তাছাড়া আর ও দুইটা দেশ ভ্রমনের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে তা পরবর্তিতে আপনার বা আপনার সন্তানের পৃথিবীর যেকোন দেশে Student Visa/ Job Visa/ Immigration Visa পাওয়ার পথকেও সুগম করবে। কানাডার ভিসা পেতে যা করতে হবে আপনাকে

নিখুঁত ফাইল প্রসেসিং, ভিসা ইন্টারভিউ এর জন্য ট্রেনিং এবং প্রয়োজনীয় কাগজ পত্রাদিতে সহায়তা সহ আমরা আপনার জন্য কানাডায় Visit Visa-র সম্পূর্ণ সেবা দিতে তৈরি।

 

ভিজিট ভিসা পাওয়ার ক্ষেত্রে সহায়কঃ

 

1.পাসপোর্ট ডিজিটাল।

2.২-৩ টি দেশে পূর্ববর্তী ভ্রমণের অভিজ্ঞতা থাকলে ভিসা পাওয়া সহজ হয়।

3.অন্যান্য যা আছে এ ব্যাপারে আমরা আপনাকে সাহায্য করতে পারবো।

  1. ভিসা ইন্টারভিউ এর জন্য উপযুক্ত ট্রেনিং এর ব্যবস্থা।
  2. নিখুঁত ভাবে ফাইল প্রসেসিং করে থাকি।

6.ব্যাংক সাপোর্ট।

7.বয়সঃ২৫ থেকে ৩০ এর মধ্যে।

যারা আগ্রহী তারা অফিস এ এসে যোগাযোগ করুন।

প্রয়োজনীয় নথিপএ

ছবিঃ ৮ কপি ( ৩৫মিমি * ৪৫ মিমি)

পাসপোর্ট

ভোটার আইডি

অভিজ্ঞতার সনদ যদি থাকে।

আমাদের ভিসা প্রসেসিং ফি  ১৫,০০০/- টকা (অর্থ প্রদানের জন্য এখানে ক্লিক করুন)

> এছাড়া ও আমরা বিদেশে কাজের দক্ষতা বাড়ানোর উদ্দেশ্যে উন্নত ট্রেনিং এর ব্যাবস্থা করে থাকি।

> প্রত্যেক আগ্রহী প্রার্থীদেরকে প্রবাসী কল্যান ব্যাংক, জনতা ব্যাংক, এবং সোনালী ব্যাংক থেকে লোন নেয়ার ব্যাপারে সহযোগিতা করা হবে।

ট্যুরিস্ট ভিসা:

বেড়াতে কিংবা পরিবারের সদস্য বা বন্ধুবান্ধবের সাথে দেখা করতে কানাডা যেতে ট্যুরিস্ট ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। সন্তান-সন্ততি বা নাতি-নাতনীদের সাথে দেখা করতে। কানাডার নাগরিক এবং স্থায়ীভাবে  বসবাস করছে এমন সন্তান-সন্ততি বা নাতি-নাতনী থাকলে দু’বছর মেয়াদী প্যারেন্ট এন্ড গ্র্যান্ড প্যারেন্ট সুপার ভিসা দেয়া হয়।

ভিসার তথ্য:

কানাডা ভ্রমণ বা বা কানাডা হয়ে অন্য দেশে যাওয়ার প্রয়োজন হলে বাংলাদেশীদের জন্য ভিসা প্রয়োজন হবে। এদিকে ২০১৩ সালে থেকে কানাডা ভ্রমণের ক্ষেত্রে বাংলাদেশীদের জন্য ছবির পাশাপাশি ফিঙ্গারপ্রিন্ট বা আঙুলের ছাপ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

কানাডার ট্যুরিস্ট ভিসার নিয়মাবলী:

বৈধ পাসপোর্ট থাকতে হবে। সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হতে হবে। কানাডা থাকা এবং সেখান থেকে ফেরার মত আর্থিক সচ্ছলতা আছে, এর প্রমাণ হিসেবে চাকরি, ব্যক্তিগত বা পারিবারিক সম্পদ দেখাতে হবে।
মানবাধিকার লঙ্ঘন বা অপরাধে জড়িত থাকার রেকর্ড থাকলে কানাডা প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয়  না।
এছাড়া স্বাস্থ্য পরীক্ষা এবং কানাডায় অবস্থানকারী কারো আবেদনপত্র প্রয়োজন হতে পারে।
ব্যবসা বা পরিবারের সদস্যদের সাথে দেখা করতে বারবার কানাডা যাওয়ার প্রয়োজন হলে মাল্টিপল এন্ট্রি ভিসা দেয়া হয়।
কেবল একবার প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয় সিঙ্গেল এন্ট্রি ভিসার মাধ্যমে।
বিমানের যাত্রা বিরতি বা ফ্লাইট বদলের জন্য ৪৮ ঘণ্টার কম সময় কানাডা অবস্থানের প্রয়োজন হলে ট্রানজিট ভিসা দেয়া হয়।
ভিসা আবেদনের সাথে একটি সাক্ষরিত কনসেন্ট ফর্ম বা সম্মতিপত্র দিতে হয়, এটি ছাড়া ভিএফএস ভিসা প্রক্রিয়াকরণের কাজ করা হয় না।
ভিসা আবেদনপত্র জমা দেয়ার পর একটি রসিদ দেয়া হয় এই রসিদে এটি ট্র্যাকিং নম্বর থাকে যেটি ব্যবহার করে অনলাইনে আবেদনের অগ্রগতি সম্পর্কে জানা যায়।

পাসপোর্ট জমা দেয়া:

আবেদনপত্র জমা দেয়ার পর কানাডা সরকারের তরফ থেকে পাসপোর্ট জমা দেয়ার জন্য রিকোয়েস্ট লেটার পাঠানো হবে এই রিকোয়েস্ট লেটারসহ ভিসা আবেদন কেন্দ্রে পাসপোর্ট জমা দিতে হবে। আবেদনকারী নিজে অথবা ক্ষমতাপ্রাপ্ত প্রতিনিধি ভিসা আবেদন কেন্দ্রে গিয়ে পাসপোর্ট জমা দিতে পারে।

পাসপোর্ট সংগ্রহ:

আবেদনকারী নিজে গিয়ে অথবা ক্ষমতাপ্রাপ্ত প্রতিনিধির মাধ্যমে পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে পারেন। এছাড়া ওয়েবসাইটের মাধ্যমে স্ট্যাটাস দেখে নিয়ে  কানাডার ভিসা অফিস থেকেও পাসপোর্ট সংগ্রহ করা যায়।

 ভিসা আবেদন প্রোসেস সংক্রান্ত:

যোগাযোগ করুন আমাদের ভিসা সহায়ক ব্যবাস্হাপক এর সাথে

মোবাইল:(+88) 01978569293)

ওয়েবসাইট:  www.airwaysoffice.com
ই-মেইল: myvisaapplicationinfo@gmail.com

অনলাইনে আবেদন করার জন্য এখানে ক্লিক করুন

সার্ভিস চার্জ জমা দেয়ার পদ্ধতি

কানাডার ভিসা আবেদন কেন্দ্রে কেবলমাত্র নগদ টাকার মাধ্যমে এসব সেবা মাশুল জমা দেয়া যাবে। ডেবিট কার্ড, ক্রেডিট কার্ড বা ব্যাংক গৃহীত হয় না।

ভিসা ফি জমা দেয়া

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের ব্যাংক ড্রাফটের মাধ্যমে ভিসা আবেদন ফি জমা দেয়া যায়। এছাড়া ভিএফএস কেন্দ্রে ব্র্যাক ব্যাংকের একটি বুথ রয়ছে সেখান থেকেও ব্যাংক ড্রাফট সংগ্রহ করা যায়। এজন্য সার্ভিস চার্জ হিসেবে ২৮০.৩০ টাকা অতিরিক্ত দিতে হয়। আবার কানাডার কোন ব্যাংক থেকেও “রিসিভার জেনারেল ফর কানাডা” বরাবরে কানাডিয়ান ডলারে  ব্যাংক ড্রাফট করে জমা দেয়া যায়।

ভিএফএস কানাডা ভিসা আবেদন কেন্দ্র

ঢাকা : ৫ম তলা, ডেল্টা টাওয়ার, প্লট-৩৭, রোড-৯০, গুলশান নর্থ, গুলশান-২, ঢাকা-১২১২, বাংলাদেশ।
চট্টগ্রাম : বাড়ী নং-৩৮, চেম্বার হাউজ, ৫ম তলা আগ্রাবাদ, চট্টগ্রাম-৪১০০, বাংলাদেশ।
সিলেট : ৮ম তলা, নির্বাণ ইন, মির্জা জঙ্গল রোড, রামের দীঘির পাড়, সিলেট-৩১০০, বাংলাদেশ।
ওয়েবসাইট: http://www.vfsglobal.ca/canada/bangladesh/

অফিস সময়:

সরকারি ছুটির দিন ছাড়া রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার খোলা থাকে। সকাল ০৯:০০ থেকে বিকাল ০৫:০০ টা পর্যন্ত অফিস খোলা থাকে।
আবেদনপত্র জমা দেয়ার সময়: সকাল ০৯:০০ থেকে বিকাল ০৫:০০ টা পর্যন্ত।
পাসপোর্ট সংগ্রহের সময়: বিকাল ০৩:০০ টা থেকে বিকাল ০৫:০০ টা পর্যন্ত।

 

যেকোনো দেশের এয়ার টিকেট, হোটেল বুকিং, হেলিকপ্টার সার্ভিস, টুরিস্ট ভিসা প্রসেসিং এবং প্যাকেজ ট্যুর করে থাকি। বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করুন নিচের ঠিকানায়।

zooFamily (community of aviation & travel)

রোড ৩, হোল্ডিং ৩, সুইট ৩৪,হ্যাপি আর্কদিয়া শপিং মল,ধানমণ্ডি,ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ। মোবাইল নাম্বার: ০১৭৬৮২৩২৩১১