হাইকমিশন ব্রুনাইয়ে মহান একুশে ফেব্রুয়ারি পালন

0
19

ব্রুনাইস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনের উদ্যোগে আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস ও শহীদ দিবস পালিত হয়েছে।বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৯টায় বাংলাদেশ হাইকমিশন ব্রুনাই দারুসসালামের অস্থায়ী কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করণের মধ্যে দিয়ে শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস পালনের আনুষ্ঠানিক সূচনা করেন বাংলাদেশ হাইকমিশনের কাউন্সিলর ও ভারপ্রাপ্ত হাইকমিশনার মাঈনুল হাসান।

শহীদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দূতাবাসের ইন্টারপ্রেটর আবু নাঈম কোরআন থেকে তেলওয়াত ও তর্জমা করেন। এসময় ৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে সকল শহীদের শ্রদ্ধা জানাতে এক

মিনিট নিরবতাও পালন করা হয়। নিরবতা পালন শেষে বাংলাদেশ হাইকমিশন ব্রুনাই দারুসসালামের ব্যানারে উপস্থিত ব্রুনাইস্থ সকল প্রবাসী বাঙালী, বাংলাদেশ কমিউনিটিসহ বিভিন্ন সংগঠনের সদস্যরা প্রভাত ফেরিতে অংশগ্রহণ করে দূতাবাস প্রাঙ্গন প্রদক্ষিন করে।

হাইকমিশন প্রাঙ্গনে অস্থায়ী শহীদ মিনারে হাইকমিশনের পক্ষে পুস্পার্ঘ অর্পন করা হয়। পুস্পার্ঘ অর্পনের সময় উপস্থিত ছিলেন হাইকমিশনের কাউন্সিলর ও ভারপ্রাপ্ত হাইকমিশনার মাঈনুল হাসান, ১ম সচিব (শ্রম) জিলাল হোসেন, প্রশাসনিক কর্মকর্তা (শ্রম) আব্দুল্লাল আল রশিদ, হিসাব রক্ষক আলমগীর হোসেন, ব্যক্তিগত কর্মকর্তা জামানুর রহমান প্রমুখ।

এরপরেই ব্রুনাইস্থ সর্বস্তরের বাঙ্গালী এবং বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষে পুস্পার্ঘ অর্পন করা হয়। এসময় বঙ্গবন্ধু পরিষদ ব্রুনাই শাখা, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ব্রুনাই শাখা, বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স ব্রুনাই দারুসসালাম এবং আমান ব্যাডমিন্টন গ্রুপ সহ বিভিন্ন সংগঠন ও শ্রেনী পেশার মানুষ পুস্পার্ঘ অর্পন করেন।

শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস পালনের দ্বিতীয় পর্বে দূতাবাসের সম্মেলনকক্ষে ব্রুনাইস্থ সকল প্রবাসীদের নিয়ে আলোচনাসভা করা হয়। এ সময় মহামান্য রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, মাননীয় পরাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের প্রেরিত বাণী পাঠ করে শোনানো হয়। বাণী পাঠ শেষে ভাষা আন্দোলনের উপর নির্মিত প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শিত হয়।

সবশেষে হাইকমিশনের কাউন্সিলর ও ভারপ্রাপ্ত হাইকমিশনার অনুষ্ঠানের সমাপনী বক্তব্য দিয়ে শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবসের কর্মসূচীর সমাপ্ত ঘোষনা করেন।

সুত্রঃ যুগান্তর

Leave a Reply