বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামাল যাদুঘর।

465

বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে প্রান দানকারী সাহসী শহীদের স্মৃতি রক্ষ্যা এবং সম্মান প্রদর্শনের জন্য বিভিন্ন জায়গায় তৈরি করা হয়েছে এক একটি স্মৃতি জাদুঘর। বাংলাদেশের ব-দ্বীপ জেলা ভোলাতে রয়েছে বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামাল যাদুঘর। প্রতি বছর অনেক দর্শনার্থী এই জাদুঘর পরিদর্শন করতে আসেন।

মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল ১৯৪৭ সালের ১৬ ডিসেম্বর ভোলা জেলার দৌলতখান থানার পশ্চিম হাজীপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা হাবিবুর রহমান সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত হাবিলদার ছিলেন। শৈশব থেকেই দুঃসাহসী হিসেবে খ্যাত ছিলেন। মোস্তফা কামালের জীবনে বেশীরভাগ কেটেছে সেনানিবাসে। তিনি সেনাবাহিনীর একজন সদস্য হবার স্বপ্ন দেখতে থাকেন এবং স্থির করেন সেনাবাহিনীতে যোগ দিবেন। ২০ বছর বয়সে পাকিস্তানের চতুর্থ ইস্ট-বেঙ্গল রেজিমেন্টে যোগদেন। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়াতে ইস্ট-বেঙ্গল রেজিমেন্টের হয়ে যুদ্ধ করেন। কর্মতৎপরতার জন্য যুদ্ধের সময় মৌখিকভাবে তাঁকে ল্যান্স নায়েকের দ্বায়িত্ব দেয়া হয়। তিনি ১৯৭১ এ পাকিস্তানি হানাদার বাহিনির সাথে সমক্ষ যুদ্ধে শহীদ হন।

১৯৪৭ সালের ১৬ ডিসেম্বর দৌলতখান উপজেলার হাজিপুর গ্রামে মোস্তফা কামালের জন্ম। ১৯৮২ সালে রাক্ষুসী মেঘনা নদীতে ওই বাড়ি বিলীন হয়ে যাওয়ার পর পরিবার-পরিজন নিয়ে ভোলা শহরের আলীনগর ইউনিয়নের মৌটুপী গ্রামে চলে আসে তাঁর পরিবার। এরপর বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৫৫ পদাতিক ডিভিশনের পক্ষ থেকে ৯২ শতাংশ জমির ওপর একতলা পাকা ভবন নির্মাণ করে দেওয়া হয়। যার নাম দেওয়া হয় শহীদ স্মরণীকা। তখন থেকে এখানেই বসবাস করছেন তাঁরা। বর্তমানে বাড়িটির অবস্থা জীর্ণ।

সম্মাননা:

মোস্তফা কামাল নামে প্রতিষ্ঠিত কলেজ প্রাঙ্গণের একটি কোণে ভোলা জেলা পরিষদের তত্ত্বাবধানে বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামাল লাইব্রেরি ও জাদুঘর নির্মাণ করা হয়। এছাড়া তাঁর নামানুসারে গ্রামের নাম মৌটুপীর নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে কামালনগর৷ মুক্তিযুদ্ধে অসামান্য অবদানের জন্য বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সামরিক পদক বীরশ্রেষ্ঠ পদক দেয়া হয়।

কিভাবে যাবেনঃ-

ভোলা শহর ঢাকা থেকে নদী পথে দূরত্ব ১৯৫ কি.মি.। বাইরুটে বরিশাল হয়ে সড়কপথে দূরত্ব ২৪৭কি.মি. এবং লক্ষীপুর হয়ে দূরত্ব ২৪0 কি.মি.। লঞ্চযোগে (সরাসরি)৮/৯ ঘন্টা, বাসযোগে (ভায়া বরিশাল) ৭/৮ ঘন্টা এবং বাসযোগে (ভায়া লক্ষীপুর) ৬/৭ ঘন্টা সময় লাগে। ভোলা শহর থেকে আপনি সহজেই বাস অথবা সিএনজি অটোরিকশাযোগে আলীনগর ইউনিয়নের মৌটুপি মৌজায় বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামাল স্মৃতি জাদুঘরে পৌছাতে পারবেন।।