৪র্থ প্রজন্মের নতুন ৪ প্লেনে সেবা দেবে ইউএস-বাংলা

288

আকাশভ্রমণে নতুন মাত্রা যোগ করবে দেশের অন্যতম বেসরকারি এয়ারলাইন্স ইউএস-বাংলার চতুর্থ প্রজন্মের চারটি ব্র্যান্ড নিউ উড়োজাহাজ। আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স ও এটিআর ৭২-৬০০ মডেলের উড়োজাহাজ বহরে যুক্ত হবে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি। এসব উড়োজাহাজ যুক্ত হলে আন্তর্জাতিক রুটে বাংলাদেশের প্লেন চলাচলে নতুন মাত্রা যোগ হবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

মঙ্গলবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর হোটেল লা মেরিডিয়ানে এ উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি জানানো হয়।সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরান আসিফ, এয়ারক্যাপ-এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও চিফ কমার্শিয়াল অফিসার মি. ফিলিপ স্ক্রাগস্, লিজিং কোম্পানির মি. সুতেশ সেলভারাতনাম, দি বোয়িং কোম্পানির ডাইরেক্টর সেলস্ অ্যান্ড মার্কেটিং আহসেন রাজপুতসহ ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের কর্মকর্তারা।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বিশ্বের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠিত এয়ারলাইন্সগুলোতে বর্তমানে অন্যতম গ্রহণযোগ্য এয়ারক্রাফট বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স যুক্ত হচ্ছে ইউএস-বাংলার বহরে। বাংলাদেশে প্রথম বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স ৮ এয়ারক্রাফট দিয়ে ফ্লাইট পরিচালনা করতে যাচ্ছে সংস্থাটি। যা ২০১৮ সালের উড়োজাহাজ পরিবহন সেবায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। ইউএস-বাংলার বিমান বহরে এমন কোনো এয়ারক্রাফট ব্যবহৃত হয় না, যে এয়ারক্রাফট বর্তমানে উৎপাদন প্রক্রিয়ার মধ্যে নেই।

‘এছাড়া খুব শিগগিরই দু’টি ব্র্যান্ড নিউ এটিআর ৭২-৬০০ মডেলের এয়ারক্রাফট ইউএস-বাংলার বহরে যুক্ত হতে চলেছে। যাত্রী সাধারণের চাহিদা অনুযায়ী, ইউএস-বাংলাই প্রথম কোনো বেসরকারি এয়ারলাইন্স, যা ফ্যাক্টরি থেকে সরাসরি এয়ারক্রাফট সংগ্রহ করতে যাচ্ছে।’

বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স এয়ারক্রাফটে সর্বকালের সবচেয়ে জনপ্রিয় জেট বিমানটিতে সর্বশেষ প্রযুক্তি সরবরাহ করে বোয়িং ৭৩৭। ৭৩৭ ম্যাক্স এয়ারক্রাফটে সংযুক্ত অত্যাধুনিক কেবিন ডিজাইন ও ইন-ফ্লাইট এন্টারটেইনমেন্ট সিস্টেম বিশ্বব্যাপী নতুন নতুন গন্তব্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। তুলনামূলক কম খরচ, পরিবেশবান্ধব ও সময়ের কারণে বিশ্বব্যাপী এয়ারালাইন্স কোম্পানির কাছে এটা গ্রহণযোগ্য।

বিশ্বের অনেক নামকরা এয়ারলাইন্স ইতোমধ্যে বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স এয়ারক্রাফট ব্যবহার শুরু করেছে। উল্লেখযোগ্য এয়ারলাইন্সগুলোর মধ্যে রয়েছে- মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্স, টার্কিশ এয়ারলাইন্স, ওমান এয়ার, কাতার এয়ারওয়েজ, ইউনাইটেড এয়ারলাইন্স, আমেরিকান এয়ারলাইন্স, চায়না ইস্টার্ন, চায়না সাউদার্ন, জেট এয়ারওয়েজ, স্পাইস জেট, ফ্লাই দুবাইসহ আরো অনেক এয়ারলাইন্স।

৩১ মার্চ থেকে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম গন্তব্য ভারতের চেন্নাইতে সপ্তাহে তিনদিন ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করতে যাচ্ছে। চেন্নাই মূলত চিকিৎসা সেবার জন্য বাংলাদেশিদের কাছে অত্যন্ত আকর্ষণীয় গন্তব্য। প্রথমবারের মতো বাংলাদেশি কোনো এয়ারলাইন্স সরাসরি বাংলাদেশ থেকে চেন্নাই ফ্লাইট পরিচালনা করবে।  অভ্যন্তরীণ সব রুট ছাড়াও বর্তমানে সিঙ্গাপুর, কুয়ালালামপুর, ব্যাংকক, গুয়াংজু, দোহা, মাসকাট ও কলকাতা রুটে ইউএস-বাংলা ফ্লাইট পরিচালনা করছে।

সুত্রঃ-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বাংলাদেশে দিন দিন ভ্রমণ শিল্প আরও উন্নতও হচ্ছে। বিগত বছর গুলোর তুলনায় বর্তমান বছর গুলোতে পর্যটক কিংবা ভ্রমণকারীর সংখ্যা বাড়ছে। তার সাথে সাথে বাড়ছে মানসম্মত হোটেলের চাহিদা। এই বর্ধমান চাহিদার কথা মাথায় রেখে দিন দিন বাংলাদেশে মানসম্মত নতুন নতুন হোটেল তৈরি হচ্ছে। কিন্তু নতুন হতেন তৈরি হবার পরেও হোটেল নির্বাচনের ক্ষ্যেত্রে  ঝামেলা পোহাতে হচ্ছে ভ্রমণকারীকে। এই সমস্যা দূর করার জন্য বাংলাদেশের অন্ন্যতম শীর্ষস্থানীয় ভ্রমণ বিষয়ক ব্যাবসায় প্রতিষ্ঠান “ ট্র্যাভেল জু বাংলাদেশ লিমিটেড এবং জু ইনফোটেক বাংলাদেশ লিমিটেড ”  হোটেল বুকিং সম্পর্কিত সেবা ব্যবস্থা নিয়েছে। আমাদের এই ব্যবস্থার মাদ্ধ্যেমে একজন ভ্রমণকারী তার পছন্দমত হোটেল এবং কামরা বুকিং করতে পারবেন। তাছাড়া উক্ত ভ্রমণকারী তার বুকিং ক্রীত হোটেলের অন্য সকল সেবা সম্পর্কে সঠিক তথ্য পাবেন।

ট্র্যাভেল জু বাংলাদেশ লিমিটেড  বা জু ইনফোটেক বাংলাদেশ লিমিটেড
রোড ৩, হোল্ডিং ৩, সুইট ৩৪,
হ্যাপি আর্কদিয়া শপিং মল,
ধানমণ্ডি,ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ।
মোবাইল নাম্বার: ০১৯৭৮৫৬৯২৯০– ৯১
সকাল ১০.৩০ থেকে রাত ৮.৩০ পর্যন্ত (সপ্তাহে ৭ দিন খোলা)