আঁচল | ট্র্যাভেল নিউজ বাংলাদেশ

378

আনাম শিপিং লাইন্স কোম্পানীর কর্তৃক পরিচালিত লঞ্চ সার্ভিস আঁচল ০, ২, ৫, ৬, ১০ ঢাকা – হুলারহাট – ভান্ডারিয়া – ঢাকা নৌপথে চলাচল করে। প্রতিটি লঞ্চে কেবিন সংখ্যা ৭৫টি। ০ থেকে ১২ বছরের কম বয়সী শিশু-কিশোরদের জন্য কোন ভাড়া নেওয়া হয় না। ১২ থেকে ১৬ বছর পর্যন্ত শিশু-কিশোরদের ক্ষেত্রে হাফ ভাড়া নেওয়া হয়।

 

 

যোগাযোগ

সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে গিয়ে সরাসরি যোগাযোগ করা যায়। তাছাড়া মোবাইলের মাধ্যমেও যে কোন তথ্য জানা যায়।

মোবাইল নম্বর: +৮৮-০১৭১১-৩৪৪৭৪৬

 

যাত্রী-উঠানামা

শিকারপুর, চৌধুরী হাট, মিরের হাট, বনানীপাড়া, ইন্দের হাট, কাউখালী ঘাটে যাত্রী উঠানামা করানো হয়। লঞ্চগুলো ৩ তলা বিশিষ্ট। এগুলোর আয়তন ২০০ ফুট × ৩২ ফুট এবং যাত্রী ধারণ ক্ষমতা ৬৩০ জন।

 

শ্রেণী ও কেবিন ভাড়া

৩য় শ্রেণী ২০০/-
কেবিন (সিঙ্গেল) ১০০০/-
কেবিন (ডাবল) ১৮০০/-
কেবিন (ভিআইপি) ১,৫০০/-

 

 

সময়-সূচী

প্রতিদিনই আঁচল সিরিজের লঞ্চসমূহ ঢাকা – হুলারহাট – ভান্ডারিয়া – ঢাকা রুটে নিয়মিত চলাচল করে।

ঢাকা থেকে ভান্ডারিয়ার উদ্দেশ্যে ছাড়ে সন্ধ্যা ৭:২০ মি:।
ভান্ডারিয়া থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছাড়ে দুপুর ২:৩০ মি:।

 

 

নিরাপত্তা ব্যবস্থা

যাত্রী সাধারণের নিরাপত্তা নিশ্চিত কল্পে ৪ জন আনসার সদস্য নিয়োজিত আছেন। নৌ দূর্ঘটনা সহ অন্যান্য দূর্ঘটনার কবল থেকে রক্ষা পেতে গৃহীত ব্যবস্থাসমূহ

লাইফ বয়া ৯৭টি
ফায়ার বাকেট ১২টি
অগ্নি – নির্বাপক সিলিন্ডার ৬টি

 

 

অন্যান্য

  • যাত্রী সাধারণের নামাজের জন্য ব্যবস্থা আছে। একসাথে ৩০ জন লোক নামাজ পড়তে পারে।
  • প্রাথমিক চিকিৎসা সুবিধার জন্য ফাস্ট এইড বক্স মজুত আছে।
  • যাত্রী সাধারণের খাবারের সুবিধার্থে লঞ্চের অভ্যন্তরে ক্যান্টিন ও ফাস্ট ফুডের দোকান আছে।
  • মালামাল পরিবহনে সরকার নির্ধারিত চার্জ গ্রহণ করা হয়।