লুফতানসা এয়ারলাইন্স সংক্রান্ত তথ্য এবং ঢাকা, বাংলাদেশ বিক্রয় অফিসের ঠিকানা

0
211

লুফতানসা এয়ারলাইন্স তাদের অসাধারন সেবা ও মান ধরে রাখার জন্য ২০১৯ সালে সারা বিশ্বে সেরা এয়ারলাইন্স হিসেবে পরিচিতি লাভ করে। লুফতানসা এয়ারলাইন্স মূলত জার্মানি ভিত্তিক একটি বিমান সংস্থা এবং একি সাথে লুফতানসা জার্মানির সবচাইতে বড় এয়ারলাইন্স কোম্পানি। ১৯২৬ সালে তারা তাদের ব্যবসার যাত্রা শুরু করে “Deutsche Luft Hansa Aktiengesellschet” নামে। কিন্তু দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় সার্বিক পরিস্থিতির জন্য তাদের ব্যবসা বন্ধ হয়ে যায় এবং ১৯৫৫ সালে আবার তারা কোম্পানি চালু করেন।

বর্তমানে, লুফথানসা এয়ারলাইন্সের যাত্রীবাহী পরিসেবা, কার্গো পরিসেবা, বিমানের রক্ষণাবেক্ষণ, বিমানের খাদ্য, পর্যটন এবং আইটি পরিষসেবা সহ ছয়টি অঞ্চলে প্রায় 400 টি বিমান নিযুক্ত রয়েছে।  সার্বক্ষণিক মানসম্পন্ন সেবা প্রদান করে আসার কারনে গ্রাহকদের মধ্যে লুফতানসা এয়ারলাইন্স এখন সুপরিচিত। তারা ১৯৯৭ সালে ইউনাইটেড এয়ারলাইনস, এয়ার কানাডা, এসএএস, থাই এয়ারওয়েজ, নর্থ-ইউরো এয়ারলাইন, ভারিগ ব্রাজিলিয়ান এয়ারলাইনস এবং দক্ষিণ আফ্রিকা এয়ারওয়েজ ইন্টারন্যাশনালের সাথে “স্টার অ্যালায়েন্স” প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দিয়েছিল। বিগত বছর গুলো ধরে পার্টনারদের জন্য তাঁরা প্রচুর সুখ্যাতি বয়ে এনেছে, যার কারনে সবসময়ই তাদের বিমানের সময়সুচি অনেক ব্যস্ত থাকে।

লুফতানসা এয়ারলাইনের সদর দফতর “Cologne, Germany” তে অবস্থিত এবং প্রধান অপারেশন হাব হল মিউনিখ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এবং ফ্র্যাঙ্কফুট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। আর এটা আমরা সবাই জানি যে, ফ্র্যাঙ্কফুট পৃথিবীর অন্যতম ব্যস্ত বিমানবন্দরগুলোর মদ্ধে একটি।

পরিসংখ্যান অনুযায়ি, ২০০৬ সাল থেকে এই বিমান সংস্থার বিমান সর্বমোট ৫৩ মিলিয়ন যাত্রি বহন করেছে। নিচে উল্লেখিত এয়ারক্রাফটগুলো তাদের প্রধান বহরে সংযুক্ত আছে –

A319s

A320s

A321s

A300s

Boeing 737s

লুফতানসা এয়ারলাইন্সের ভ্রমন ক্লাসের বিবরন –

লুফতানসা সকল গ্রাহকদের সুবিধার জন্য ৪ ধরনের ভ্রমন ক্লাস পরিচালনা করে থাকে, সেগুলো হল – ফার্স্ট ক্লাস, বিজনেস  ক্লাস, ইকনমি প্লাস, ইকনমি।

লুফতানসা কেন বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ এয়ারলাইন্স কোম্পানি?

সহায়ক কোম্পানিগুলোস সাথে একসাথে কাজ করার কারনে লুফতানসা ইউরোপের বৃহত্তম এয়ারলাইন কোম্পানি হয়ে উঠেছে। তাদের দীর্ঘতম ফ্লাইট রেকর্ড করে এল এইচ ৫১০ এয়ারবাসের সাহায্যে ১৩ ঘন্টা ৫৫ মিনিটের। তারা নতুন ২০টি ব্র্যান্ড নিউ জাম্বো সম্প্রতি তাদের বহরে সংযুক্ত করেছে, যার মাধ্যমে তাঁরা বিশ্বের সর্ববৃহৎ ৭৪৭-৮ বহর তৈরি করেছে। একি সাথে লুফতানসা’ই একমাত্র এয়ারলাইন্স যারা ২০০৪ এ আকাশে ৩০,০০০ ফুট উপর থেকে ইনফ্লাইট ইন্টারনেট সরবরাহ করে।

ভ্রমণকারীদের মধ্যে তাদের ফার্স্ট ক্লাস এবং বিজনেস ক্লাস খুবই বিখ্যাত। তাদের অন-বোর্ড ক্যাটারিং সার্ভিস এলএসজি স্কাই শেফস দ্বারা পরিচালিত যারা বিশ্বের বৃহত্তম বিমান সংস্থার ক্যাটারার হিসেবে সুপরিচিত।

লুফতানসা এয়ারলাইনের আরো একটি পরিচিতি রয়েছে। বিশ্বকাপ জয়ী জার্মান ফুটবল দল নিয়ে উড়ে আসার পর থেকে তাঁরা “উইনারস-প্লেন” নামে সুপরিচিতি লাভ করে।

এসব নানা বিখ্যাত কারনে লুতফানসা “সিগারফ্লাইগার ফানহানসা” হয়ে ওঠে এবং “ফানহানসা” তে পরিচিতি লাভ করে।

লুফতানসা এয়ারলাইসের গ্রাহকের জন্য নির্ধারিত পরিষেবা গুলো:

১)বিমানের টিকেট বুকিং

২) টিকিট বাতিলকরণ,

৩)টিকিটের সময় পরিবর্তন

৪)ভিসা সম্পর্কিত সেবা

৫) অনলাইন চেক ইন

৬)মালপত্র সম্পর্কিত তথ্য

৭) বিমানের তথ্য

৮) বিমানবন্দর সুবিধা সম্পর্কিত তথ্য

৯) বিমানের অভ্যন্তরীণ খবার ব্যবস্থা সম্পর্কিত তথ্য ইন

১০)মালপত্রের নিরপত্তা সম্পর্কিত তথ্য

১১)বহির্গমন সেবা সম্পর্কিত তথ্য

১২)বিমানের অভ্যন্তরীণ বিনোদন সম্পর্কিত তথ্য

১৩) বিমানের বিলম্ব জনিত সমস্যার সমাধান। ইত্যাদি

বাংলাদেশে লুফতানসা এয়ারলাইনসের টিকিট বিক্রি করে এমন অনেক ট্র্যাভেল এজেন্ট রয়েছে। তবে সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য অনুমোদিত বিক্রয় এজেন্টগুলির একটি এয়ারওয়েজ অফিস বা জু ইনফোটেক (বাংলাদেশে শীর্ষস্থানীয় ট্র্যাভেল এজেন্ট) যারা বিমান শিল্প ও ভ্রমণ সংশ্লিষ্ট প্রযুক্তি গত দিক নিয়ে কাজ করে। সর্বোচ্চ সস্তা মূল্যে বিমানের টিকেট এবং অন্যান্য পরিষেবা নিশ্চিত করতে ট্র্যাভেলজু বিডি লিমিটেড এর অফিসের ঠিকানায় যোগাযোগ করুন।

ঢাকাস্থ লুফতানসা এয়ারলাইনস বিক্রয় প্রতিনিধির অফিসে যোগাযোগের ঠিকানা

এয়ারওয়েজ অফিস বা জু ইনফোটেক বাংলাদেশ লিমিটেড

রোড ৩, হোল্ডিং ৩, সুইট ৩৪, হ্যাপি আর্কেড শপিং মল,

ধানমণ্ডি,ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ।

মোবাইল নাম্বার: ০১৯৭৮৫৬৯২৯৪– ৯৫-৯৬

ইমেইলঃ travelzoobangladesh@gmail.com

অফিসিয়াল এয়ারলাইন্সঃ http://lufthansa.com.bd/

সকাল ১০.৩০ টা থেকে রাত ৮.৩০টা পর্যন্ত(সপ্তাহে ৭ দিন খোলা)

এয়ারওয়েজ অফিসের গুগল ম্যাপ লোকেশন

 

এয়ারওয়েজ অফিসের ফেসবুক পেজ

ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিমান সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য জানার উপায়:

যাত্রীদের ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিমান সম্পর্কিত তথ্য জানার প্রক্রিয়াকে বলে অনলাইন চেক-ইন। এটি এমন প্রক্রিয়া যেখানে যাত্রীরা ইন্টারনেটের মাধ্যমে তাদের ফ্লাইটে উপস্তিথির তথ্য নিশ্চিত এবং তাদের নিজস্ব বোর্ডিং পাসগুলি মুদ্রণ করতে পারেন।ক্যারিয়ার এবং নির্দিষ্ট ফ্লাইটের ধরনের উপর নির্ভর করে যাত্রীরা তাদের পছন্দের খাবার এবং খাবারের বিকল্প ও মালপত্রের পরিমাণের তথ্য নিশ্চিত করতে পারেন । তাছাড়া যাত্রীরা উক্ত পক্রিয়ার মাধ্যমে তাদের পছন্দের আসন পূর্বেই নির্বাচন করতে পারে।

#অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট এর ক্ষেত্রে প্রস্থানের নির্ধারিত সময় থেকে  ১ কিংবা ১ঃ৩০ ঘন্টা আগে চেক-ইন করতে হয়।

#যাত্রীরা তাদের ই-বোর্ডিং পাস চেক ইন এর জন্য মোবাইল ওয়েবসাইট বা মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করতে পারেন।

# যে সকল যাত্রী অনলাইনে চেক ইন করবে তাদের নিজ উদ্যোগে তাদের বোর্ডিং পাস মুদ্রণ এবং তাদের বিমানবন্দর থেকে বোর্ডিং পাসের জন্য একটি ভাউচার বাধ্যতামূলক গ্রহন করতে হবে

রিজার্ভেশন সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্যঃ

ফ্লাইটে উঠার আগে অবশ্যই আপনার বিমানের টিকিটটি পরীক্ষা করুন এবং ভালভাবে নিশ্চিত হন। আপনি যদি আপনার রিজার্ভেশন সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য দেখতে চান তাহলে রিজার্ভেশন থেকে, আপনার রিজার্ভেশন রেফারেন্স বা পিএনআর নাম্বার টি এবং আপনার নামের শেষ অংশটি লিখুন।উক্ত তথ্য গুলো লিখার পর রিজার্ভেশন থেকে আপনি আপনার সকল তথ্য জমা দেখতে পারবেন। আপনি ফ্লাইট পরিবর্তন করতে চাইলে আপনার বুকিং রেফারেন্স নাম্বার এবং আপনার নামের শেষ অংশটি লিখুন। এরপর আপনার বুকমার্ক এ আপনার নামের অংশটুকু একইরকম কিনা সেটা নিশ্চিত করুন।

Lufthansa Airways sales office Related post By
Airways Office, Zoo Infotech, ZooHoliday, Zoo.Family

লুফতানসা এয়ারলাইন্সের ঢাকা অফিসের ঠিকানা বা ফোন নাম্বারে সংক্রান্ত যে কোনও সমস্যা / অভিযোগ নীচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here