ড্রিম হলিডে পার্ক

0
39

আড়াই হাজার বছরের প্রাচীন সভ্যতার নিদর্শন উয়ারী বটেশ্বর ও সবুজে ঘেরা এই নরসিংদীর একমাত্র চিত্তবিনোদন কেন্দ্র হচ্ছে ড্রিম হলিডে পার্ক। বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক লাগোয়া সদর উপজেলার পাঁচদোনা এলাকার চৈতাবতে গড়ে উঠা দৃষ্টিনন্দন এই বিনোদন পার্কটি গত পাঁচ বছরে নজর কেড়েছে দর্শকদের।

মোঘল ঐতিহ্যে নির্মিত হয়েছে এর প্রবেশদ্বার। বিনোদনের জন্য এই পার্কে আছে ২৫টি রাইড। সব বয়সের মানুষের বিনোদনের জন্য পার্কটি উপযুক্ত। এতে স্থাপন করা হয়েছে বৃহত্তম ওয়েবপুলসহ আন্তর্জাতিক মানের ৯টি ওয়াটার রাইড। রয়েছে গানের তালে তালে জলরাশির নৃত্য।

প্রায় আড়াই হাজার শতাংশ জমির উপর প্রতিষ্ঠিত এই বিনোদন পার্কে ছোটদের জন্য রয়েছে বেশ কিছু রাইড। এছাড়াও রয়েছে অত্যাধুনিক সুইমিংপুলএয়ার বাইসাইকেলবাম্পারকারসোয়ান র্বোডওয়াটার র্বোডঅত্যাধুনিক রোলার কোস্টারডেমুট্রেন সুইং চেয়ারস্পিডবোটবাচ্চাদের অতিপ্রিয় নটিক্যাসেলজাম্পিং হর্সবসানো হয়েছে লাফার কিংসহ বিভিন্ন রাইড। পাশাপাশি তৈরি করা হয়েছে আইসপাহাড়। আনন্দ উপভোগ করতে পার্কটিকে আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে নতুন আঙিকে প্রস্তুত করা হয়েছে। পার্কের ভেতরে অত্যাধুনিক মোজাইক পাথর দিয়ে তৈরি করা হয়েছে পায়ে হাঁটার অত্যাধুনিক রাস্তা। ঈদকে ঘিরে পার্কে নেওয়া হয়েছে অতিরিক্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

ড্রিম হলিডে পার্কে পিকনিকের জন্য রয়েছে চমৎকার ব্যবস্থা। ড্রিম হলিডে পার্কে দুটি পিকনিক স্পট রয়েছে। পিকনিকের জন্য এখানে রয়েছে ডেকোরেটরের সুবিধা, পর্যাপ্ত সংখ্যক স্বাস্থ্যকর টয়লেট, সুপরিসর শেড, ২৪ ঘণ্টা নিরাপত্তা ব্যবস্থা, সাউণ্ড সিস্টেম (আগাম খরচ দিতে হবে), গাড়ি পারকিং, বিভিন্ন রাইড, খাবারের ব্যবস্থা (আগাম খরচ দিতে হবে), বিভিন্ন রাইড এবং নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ।

যেভাবে যাবেনঃ-

ঢাকার গুলিস্তান ও মহাখালি থেকে বাসে করে নরসিংদীতে যেতে পারবেন। গুলিস্তান থেকে মেঘালয় লাক্সারি নামক বাস নরসিংদীর উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। এই বাসে যেতে ভাড়া পরবে ৮০/- টাকা। এছাড়া মহাখালি থেকে নরসিংদীর উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়া বাসগুলোর মধ্যে রয়েছেঃ পিপিএল ট্রান্সপোর্ট, বিআরটিসি এসি বাস, বাদশা, চলনবিল ইত্যাদি। এছাড়া টঙ্গী-পুবাইল হয়ে যায় এমন বাসে উঠলে আপনাকে পাঁচদোনায় নামতে হবে এবং সেখান থেকে প্রায় ১০০/- টাকা ভাড়ায় সিএনজি অটোরিকশায় করে পার্কে পৌছাতে পারবেন।

খোলা-বন্ধের সময়সূচী:

প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত খোলা থাকে। তবে সন্ধ্যা ৬ টা থেকে ৬ টা ৩০ মি. এর পর টিকিট বিক্রি বন্ধ হয়ে যায়।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here